ঈদুল ফিতরের ছুটি ২০২২ | ঈদের ছুটি ২০২২

২,৫২৯

হিজরি ১৪৪৩ ক্যালেন্ডার মোতাবেক পবিত্র রমজান ২০২২ চলমান যা ৩ এপ্রিল শুরু হয় । ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ রোজা শুরুর পূর্বেই ইফতার ও সাহরির সময়সুচি প্রকাশ করে। এছাড়া ফিতরা ২০২২ এর হার নির্ধারন করত তা বিজ্ঞপ্তি আকারে প্রকাশ করেছে। আসছে দিনে রয়েছে পবিত্র রজনী লাইলাতুল কদর বা শবে কদর ও ঈদুল ফিতর বা ঈদের দিন। রোজর ঈদ বা ঈদুল ফিতর কবে হবে তা মূলতঃ চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল হলে বর্তমান সময়ে জৌতিশাস্ত্রের কল্যানে মানুষ আগেই নতুন চাঁদের তৈরি হওয়ার তারিখ জানতে পারছে। শুধু তাই নয় আগামি পাঁচ/ছয় বছরের রোজা ও ঈদের তারিখ এখনই নির্ণয় করা সম্ভব। ঈদুল ফিতরের ছুটি ২০২২ বা ঈদের ছুটি ২০২২ কবে শরু হবে কিংবা কয় দিনের হবে তা নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন উদ্দিপনা। যদিও সরকারি ছুটির তালিকা ২০২২ তার বিস্তারিত বর্ণনা রয়েছে।

ছুটির তালিকা ২০২২, হিজরি ক্যালেন্ডার ১৪৪৩ এবং ইফতার সেহরীর সময়সূচি ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর দিকে তাকালে আমরা দেখতে পাই ৩ এপ্রিল হতে শুরু হওয়া রমাদান ২০২২ এর রোজা ৩০ দিনের। এছাড়া, আমরা দেখতে পাই যে, হিজরি সনের মাসের গণনায় সাধারনত ৩০ অথবা ২৯ দিনের হয়ে থাকে। সেই দিক থেকেও বুঝা যায় ২০২২ সালের রমাদান বা রোজার মাস ত্রিশ দিনের হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি।

সরাকরি ছুটির প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী সাধারণত ঈদুর ফিতরের ছুটি শুরু হয় ঈদের একদিন আগে যা ঈদের দিন ও ঈদের পর দিন বা ঈদের দ্বিতীয় দিন পর্যন্ত হয়। এছাড়া, একদিনের প্রাতিষ্ঠানিক ঐচ্ছিক ছুটি নেওয়ার সুযোগ রয়েছে বিধায় ঈদের তৃতীয় দিনও বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষনা করে থাকে। এই হিসেবে ঈদুল ফিতরের ছুটি হয় ৪ দিন।

এবছর পবিত্র রমজান ৩০ দিন পূর্ণ হবে ২রা মে ২০২২ তারিখ এবং শাওয়াল মাসের ১ তারিখ বা ঈদুল ফিতর হবে ৩ মে ২০২২। ঈদের একদিন আগে ও পরের দুই দিন ছুটি গণনায় ঈদের ছুটি হবে ২ মে হতে ৫ মে ২০২২। এর সাথে রয়েছে শবে কদরের একদিনের ছুটি।

শবে কদর ২০২২ কত তারিখে

ছুটির তালিকা ২০২২, হিজরি ক্যালেন্ডার ১৪৪৩ এবং ইফতার সেহরীর সময়সূচি ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর দিকে তাকালে আমরা দেখতে পাই ৩ এপ্রিল হতে শুরু হওয়ায় শবে কদর ২০২২ হবে ২৯ এপ্রিল। যদিও শবে কদর বা লাইলাতুল কদর কবে হবে কিংবা এর নির্দিষ্ট তারিখের কোনও বর্ণনা কোরআন বা হাদিসে স্পষ্টভাবে নেই।

পবিত্র কোরআন ও হাদিসের বর্ণনায় আমরা দেখতে পাই শবে কদর মূলতঃ রমজানের শেষ দশকের বিজোড় রজনীতে হওয়ার ইঙ্গিত রয়েছে। এই রজনী সম্পর্কে বলতে গিয়ে প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (স) বলেন তোমরা রমজানের শেষ দশকের বিজোড় রজনীতে লাইলাতুল কদর বা শব কদরের খোঁজ কর। করাণ আমাকে এই রজনীর তারিখ কবে হবে তা ভুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ঈদুল ফিতরের ছুটি ২০২২

পবিত্র শবে কদর ২০২২ এর ছুটি ২৯ এপ্রিল শুক্রবার হওয়ায় শুক্রবার বা ২৯ এপ্রিল ২০২২ হতে ঈদের ছুটি গণনা শুরু হবে কারণ ২৯ ও ‍৩০ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটির দিন এবং রবিবার ১ মে (লেবার ডে বা শ্রমিক দিবস) সরকারি ছুটি। সোম, মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ২ মে থেকে ৫ মে পর্যন্ত ছুটি পাচ্ছে সবাই। পরদিন আবারও শুক্র, শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। সুতরাং ঈদুল ফিতরের ছুটি ২০২২ বা ঈদের ছুটি ২০২২ হবে ৯ দিন।

ঈদের সরকারি ছুটি ৩ দিন হলেও ঐচ্ছিক ছুটি (মুসলিম পর্ব) ১ দিন, ১লা মে শ্রমিক দিবসের ছুটি ও সাপ্তাহিক ছুটি (শুক্র ও শনিবার) মিলিয়ে এই বছরের সরকারি-বেসরকারি কর্মচারিরা ঈদুল ফিতরের ছুটি ভোগ করবেন মোট ৯ দিন।

ঈদে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ২০২২

ঈদে সাধারণত শহুরে মানুষগুলো আপন-জনের সান্নিধ্য পাওয়ার উদ্দেশ্যে গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন করে থাকে। ঈদের আত্মীয়-স্বজনদের সাথে সাক্ষাৎ ও একটু অবকাশ যাপনের জন্য ঘরমুখী মানুষকে নির্বিঘ্নে পৌঁছে দিতে বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) চালু করে বিশেষ ট্রেন ও বাস সার্ভিস যা ঈদের আগে ও পরের কয়েক সপ্তাহজুড়ে চলমান থাকে। ২০২২ সালের এই লম্বা ঈদের ছুটিতে ট্রেনের অ্রগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে ২৩ এপ্রিল ২০২২ হতে।

ঈদে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শরু হবে ২৩ তারিখ যেদিন ২৭ এপ্রিলের টিকিট কাটা যাবে। এভবে ২৪, ২৫, ২৬, ২৭, ২৮, ২৯, ৩০ এপ্রিল ও ১ মে পর্যন্ত চলমান থাকবে। এদিকে, আগে শুধু কমলাপুর ও বিমান বন্দর স্টেশন হতে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটা গেলেও এবার যাত্রির চাপ ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক দিক বিবেচনা করে তেজগাঁও স্টেশন, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন, ফুলবাড়িয়া স্টেশন (পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন) হতে টিকিট বিক্রি করা হবে।

এবারের ঈদের ছুটিতে স্পেশাল সার্ভিসের মধ্যে রয়েছে চাঁদপুর স্পেশাল ১ ও ২ ট্রেন যা চট্টগ্রাম-চাঁদপুর-চট্টগ্রাম রেল রুটে ঈদের আগে ২৯ এপ্রিল হইতে ১ মে এবং ঈদের পর ৪-৮ মে পর্যন্ত চলবে।

আপরদিকে দেওয়ানগঞ্জ স্পেশাল ট্রেন ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ-ঢাকা রেল রুটে ঈদের আগে ২৯ এপ্রিল থেকে ১ মে এবং ঈদের পর ৪-৮ মে পর্যন্ত চলবে।

অন্যদিকে, খুলনা স্পেশাল (মৈত্রী রেক দিয়ে) খুলনা-ঢাকা-খুলনা রুটে ২৯ এপ্রিল থেকে ১ মে পর্যন্ত চলবে।

শোলাকিয়া স্পেশাল-১ ট্রেন ভৈরববাজার-কিশোরগঞ্জ-ভৈরববাজার রুটে এবং শোলাকিয়া স্পেশাল-২ ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ রুটে শুধুমাত্র ঈদের দিন চলবে।

এর পাশাপাশি রয়েছে বরিশাল, চাঁদপুর, ভোলা, পিরোজপুরসহ নৌরুট সম্পন্ন জেলায় দেওয়া হবে স্পেশাল লঞ্চ সার্ভিস।