ADs BB
ADs BB

গোঁফের পানি খাওয়া কি হারাম

১৪৩

ইসলাম একটি পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান, যেখানে মানব জীবনের সব কিছু নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। গোঁফের পানি খাওয়া কি হারাম এই নিয়ে নানা ধরনের চমকপ্রদ তথ্য ও ফতোয়া প্রচলিত রয়েছে। তবে ইসলামি শরিয়তের স্কলারগণদের মতামতের ভিত্তিতে কুরআন সুন্নাহর আলোকে দাড়ি ও গোঁফ নিয়ে আলোচনা, ইসলামে গোঁফ রাখা এবং গোঁফ কাটার নিয়ম নিয়ে সুস্পষ্ট বর্ণনা রয়েছে। পোঁফ রাখার উপকারিতা ও গোঁফ স্টাইল নিয়ে কিছু প্রচলিত মতবিশ্বাস থাকলেও ইসলামের নির্দেশনা হলো দাঁড়ি লম্বা করা এবং গোঁফ খাট রাখা।

প্রশ্ন: গোঁফের পানি খাওয়া কি হারাম

উত্তর: না, হারাম নয়। তবে গোঁফ এত বড় রাখা যা খানাপিনার সময় লেগে যায়, এমন গোফ রাখা শরীয়তসম্মত না। বরং গোঁফ ছোট রাখাই সুন্নাহ। তাই বড় গোঁফ রাখবো না।

হাদিসে এসেছে—
عَنْ زَيْدِ بْنِ أَرْقَمَ قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَنْ لَمْ يَأْخُذْ شَارِبَهُ فَلَيْسَ مِنَّا

অর্থ: হযরত জায়েদ বিন আরক্বাম (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি গোঁফ কর্তন করে না, সে আমাদের অন্তর্ভূক্ত না। [সুনানে নাসায়ী, হাদিস নং: ১৩; সহিহ ইবনে হিব্বান, হাদিস নং: ৫৪৭৭; আল-মু’জামুল আওসাত লিত-তাবারানি, হাদিস নং: ৫২২]

সহিহ হাদিস গ্রন্থের ৫৮৯৩ নম্বর হাদিসের বর্ণনায় এসেছে, রাসূলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘তোমরা দাড়ি লম্বা করো, মোচ খাটো করো।

উপরোক্ত হাদিস ছাড়াও আরও অনেক হাদিসে দাড়ি লম্বা করার নির্দেশনা থাকলেও গোঁফ রাখা যাবে না মর্মে সরাসরি কোনো নিষেধাজ্ঞাও নেই। সুতরাং গোঁফ রাখা হারাম কিংবা মাকরূহ নয়। তবে তা লম্বা করা কিংবা না কাটার বিষয়ে বলা থাকায় বিদঘুটে আকৃতির কিংবা এমন লম্বা করা যা দৃষ্টিকটু এমন করা অনুচিত হবে।

এমন ধরনের গোঁফ রাখা যাবে না যা খারাপ গ্রহণে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে।

মহান আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ’লার নৈকট্য লাভের জন্য ইবাদত ও তার রাসুলের নির্দেশনা মোতাবেক চলার তৌফিক আমাদের সবাই তিনি দান করুক। আমিন

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.