‘দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা’ ইতিবাচক দেখছেন ইভ্যালির সিইও

0 ২২২

সম্প্রতি ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন। বিষয়টিকে ‘পজিটিভলি দেখছি’ বলে মন্তব্য করেন দেশের আলোচিত ইকমার্স মার্কেটপ্লেস ইভ্যালি ডট কম ডট বিডি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ রাসেল। তিনি বলেন, ‘আমি আমার বিদেশ যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি পজিটিভলি দেখছি। বাংলাদেশের সব বড় কোম্পানির সঙ্গে আমার সম্পর্ক আছে। হয়তো আমাকে ভালোবাসার জন্য ওনাদের ভয়ের বিষয়টি আমাকে বলতেন না। আমরা বিজনেস করেছি সবার সঙ্গে। এখন ওনারা আরও বেশি কনফিডেন্স (আত্মবিশ্বাস) পাবেন।

গত ৮ জুলাই ২০২১ তারিখে এ সংক্রান্ত অনুমোদন দেওয়ায় কমিশন ১০ জুলাই ২০২১ তারিখে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চকে দাপ্তরিকভাবে পত্র প্রেরণ করে। যা আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে মহামান্য আদালত হতে অনুমোদন নিবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) মুহাম্মদ আরিফ সাদেক।

এদিকে দেশসেরা ইকমার্স সাইট ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল এ বিষয়ে তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক একাউন্টে একটি পোস্টে বিষয়টিকে ‘পজিটিভলি দেখছি’ বলেও মন্তব্য করেছেন।

তিনি লেখেন, ‘আমি আমার বিদেশ যাওয়ার নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি পজিটিভলি দেখছি। বাংলাদেশের সব বড় কোম্পানির সঙ্গে আমার সম্পর্ক। হয়তো আমাকে ভালোবাসার জন্য ওনাদের ভয়ের বিষয়টা আমাকে বলতেন না। আমরা বিজনেস করেছি সবার সঙ্গে। এখন ওনারা আরও বেশি কনফিডেন্স পাবেন।’

ইভ্যালির গ্রাহকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আমি শুধু একটাই রিকোয়েস্ট করব যে, আমাদের তদন্ত বিষয়ে অতি উৎসাহ নিয়ে কেউ কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বলবেন না। আপনাদের রেগুলার কেনাকাটা ইভ্যালিতে করুন। এতে ইভ্যালির লসের যৌক্তিকতা আসবে।’

তিনি আরও উল্লেখ করেন, ‘কখনও কোনো দেশের মাল্টিপল ভিসা ছিল না, এখন কোনো ভিসাও নাই এবং কখনও কোনো সিটিজেনশিপের জন্য অ্যাপ্লাই করি নাই। ঘুরতে গিয়েছিলাম কয়েকবার। দেশ আমাদের। আমরা সবাই দেশের জন্যই কাজ করতে চাই। দোয়া রাখবেন।’

প্রসঙ্গত, গত মার্চ ২১ সালে ইভ্যালির ডিজিটাল প্রতারণা শিরোনামে প্রথম আলো একটি সংবাদ প্রকাশ করলে বাংলাদেশ ব্যাংক একটি তদন্ত শুরু করলে তখন একবার দেশের সবচেয়ে বড় ইকমার্স প্লাটফর্ম ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডির বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.